অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম | How to write assignment

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম | How to write assignment

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম | How to write assignment: শিক্ষা জীবনে অ্যাসাইনমেন্ট খুবই গুরুত্বপূর্ণ । কিন্তু অনেকেই আছেন যারা জানেন না অ্যাসাইনমেন্ট কি এবং অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম কি?। আজকের এই পোস্টে আপনারা জানতে পারবেন অ্যাসাইনমেন্ট কাকে বলে এবং কিভাবে সঠিক নিয়মে অ্যাসাইনমেন্ট লেখা যায়। পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়া করে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন।

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম | How to write assignment

অ্যাসাইনমেন্ট কি?

অ্যাসাইনমেন্ট হলো একটি কাজ বা কাজের অংশ যা দেওয়া হয় মূলত পড়াশোনার অংশ হিসেবে। অ্যাসাইনমেন্টের সাথে লিখিত কাজ এবং ব্যবহারিক কাজও জড়িত।

ক. অ্যাসাইনমেন্ট হ’ল শিক্ষার্থীদের ঘরে বসে দেওয়া কাজের একটি অংশ।

খ. অ্যাসাইনমেন্ট হ’ল একটি কাজ যা কাউকে দেওয়া হয়, সাধারণত তাদের কাজের অংশ হিসাবে।

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম | How to write assignment

কিভাবে অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে হয়-

১। একটি কভার পেজ থাকবে, পেজটি ফর্মাল ডিজাইনের হলে ভাল হয়।

২। কভার পেজে সাবজেক্ট অনুযায়ী একটি লোগো থাকবে।

৩। কভার পেজে উপরের দিকে বড় স্পষ্ট বিষয় লেখা থাকবে, এটি অর্ধচন্দ্রাকৃতির হলে ভাল দেখাবে তবে সাধারন সোজা হলে কোন সমস্যা নাই।

৪। নিচের দিকে নাম, শ্রেণী রোল, বইয়ের নাম ইত্যাদি থাকবে।

৫। এসাইনমেন্ট এর লাস্টে একটি ফাকা সাদা পেজ থাকবে।

৬। আদর্শ এসাইনমেন্ট বিশেষ পলিপ্লাস্টিক মলাট দ্বারা বাধায় করতে হয়। (তবে ছাত্রছাত্রীদের এই বিষয়টি বাধ্যতামূলক নয়, পরে নির্দেশনা দেওয়া হবে এই বিষয়ে)

৭। এসাইনমেন্ট এর ভেতরের লেখার পেজে যথেস্ট মার্জিন থাকতে হবে।

৮। আদর্শ এসাইনমেন্ট একটি পেজের শুধু উপরে সাইট বা ডান সাইটে লিখতে হয়, বা পাশে লেখা ঠিক নয়, তবে লিখলে অসুবিধাও নাই।

৯। কোন একক বিষয়ে এসাইনমেন্ট ছোট লিখলেও ৭-৮ পৃষ্ঠার বেশি লিখতে হয়। আর আদর্শ এসাইনমেন্ট আরও বড় ২০-৫০ পেজও হতে পারে। তবে ছাত্রছাত্রীদের সিলেবাস নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়েছে বলে অযথা বড় করা ঠিক নয় তবে বিভিন্ন প্রশ্ন টপিক বড় ব্যাখ্যায় লিখতে হবে। এখানে ব্যাখ্যা গুলো মুখস্থ বা বইতে যা আছে তাই শুধু তা না লিখে নিজের মতামত চিন্তা গবেষণা ও উল্লেখ করা যাবে

১০। এসাইনমেন্ট সাধারনত স্টাইলিশ অক্ষরে লিখতে নাই, তাই স্পষ্ট ও সকল অক্ষরের যথাযথ সাইজ রাখার বিষয়ে খেয়াল করতে হবে।

১১। এসাইনমেন্ট এর তথ্যের উৎস যেকোন কিছু হতে পারে যেমন, বই, গল্পের বই, উপান্যাস, কাব্যগ্রন্থ, ইন্টারনেট ইত্যাদি হতে পারে কোন সমস্যা নাই, তবে হুবুহ কপি করা যাবেনা। উৎস পড়ে যা বুঝবেন সেটিই লিখতে হবে।

উপদেশ মুলক বানী কোন ব্যক্তি বা লেখকের কথা এখার সময় ডাবল কোটেশনে লিখতে হয়।

১২। এসাইনমেন্ট কাগজের এক পাশে লিখতে হবে। অর্থাৎ বইয়ের মত মেলালে লেখা শুধু ডান পাশে থাকবে। বাম পাশে থাকবেনা। মানে পৃষ্ঠার তলার পাশে লেখা যাবেনা।

১৩। বড় বড় ক্ষেত্রে এসাইনমেন্ট হাতে লিখে মডেল তৈরি করে পরে হুবু সেটা টাইপ করে প্রিন্ট করে বাধাই করে জমা দিতে হয়। কিন্তু এখানে যেহেতু ছাত্রছাত্রীদের পরিক্ষার বিকল্প তাই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে, ছাত্র ছাত্রীকে নিজ হাতে কাল বলপয়েন্ট দিয়া লিখতে হবে। অর্থাৎ প্রিন্ট করা যাবেনা

১৪। নিজে নিজে খুজে বের করে লিখবেন।অন্য কেউ লিখে দিতে পারবেনা।

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম | How to write assignment

আমাদের ওয়েবসাইটে আমরা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকসহ সকল অ্যাসাইনমেন্ট ও তার উত্তর প্রকাশ করে থাকি। তাই আমাদের ওয়েবসাইটটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

আরও পড়ুন: ৬ষ্ঠ শ্রেণির সকল অ্যাসাইনমেন্ট ও উত্তর ২০২১

Check Also

নবম শ্রেণির বাংলাদেশ ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা অ্যাসাইনমেন্ট  ২০২১ | ১৮তম সপ্তাহ

নবম শ্রেণির বাংলাদেশ ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা অ্যাসাইনমেন্ট  ২০২১ | ১৮তম সপ্তাহ

নবম শ্রেণির বাংলাদেশ ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা অ্যাসাইনমেন্ট  ২০২১ | ১৮তম সপ্তাহ: আপনি কি নবম শ্রেণির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *